logo
logo
(Trust Registration No. 393)
aima profilepic
Md Muslehuddin
Journalist Tnewsworld
0
0 views    0 comment
0 Shares

স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির জঙ্গীপুর মহম্মদপুরে

এম.ইউ.সালমা * জঙ্গীপুর

সেভ হিউম্যানিটি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের উদ্যোগে এবং জঙ্গিপুর পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর জহিদুর রহমান ও কো-অর্ডিনেটর আবেদা সুলতানার সহযোগিতায় একটি স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয় ৷অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জঙ্গীপুর পৌরসভার পৌর পিতা মোজাহারুল ইসলাম, জেলা পরিষদ সদস্যা বিশিষ্ট সমাজসেবী রুবিয়া সুলতানা, জেলা পরিষদ সদস্য মন্টু রহমান, গিনি হাউসের কর্ণধার রেজাউল করিম, বিশিষ্ট সমাজসেবী বিজয় হার্ডওয়্যার এর কর্নধার বিজয় কুমার জৈন, বিশিষ্ট শিক্ষক ফুরকান আলী,সেভ মেধা ফাউন্ডেশনের শুভঙ্কর সরকার, স্পন্দন ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা জিয়াউল হক, আই.সি.আর হাই মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মহঃ মোসাররাফ হোসেন সহ এলাকার বিশিষ্ট গুণিজন ৷অনুষ্ঠানে প্রায় পঞ্চাশজন রক্তদাতা স্বেচ্ছায় রক্তদান করতে এগিয়ে আসেন ৷ থ্যালাসেমিয়া আক্রান্তদের রক্তের সংকট মেটাতে এই উদ্যোগ বলে জানা যায় ৷ আজকের সভা  থেকে বেশকিছু স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এবং সাংবাদিকবন্ধুদেরও সংবর্ধিত করা হয় ৷সভায় আমন্ত্রিত বক্তাগণ তাদের বক্তব্যের মাঝে রক্তদানের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন ৷ সকলেই একমত হন যে মানুষের পাশে থাকতে,মানব সেবা করতে স্বেচ্ছায় রক্তদান মহৎ একটি দান এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নাই ! এক ফোঁটা রক্তের বিনিময়ে বেঁচে যেতে পারে একটি জীবন ৷ তাই সকলকে এহেন মহৎ কাজে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয় !
সর্বশেষ কো অর্ডিনেটর আবেদা সুলতানার রক্তদানের মাধ্যমে রক্তদান শিবির সম্পন্ন হয়।

..........
0
0 views    0 comment
1 Shares

জলপাইগুরির ময়নাগুড়িতে ট্রেন দুর্ঘটনায় লাইনচ্যুত চার বগি

নিজস্ব সংবাদদাতা

উত্তরবঙ্গে ভয়াবহ ট্রেন দু্ঘটনা আজ ১৩/০১/২০২২ তারিখ।জলপাইগুরির ময়নাগুড়িতে ট্রেন দুর্ঘটনায় লাইনচ্যুত চার বগি।
15633 UP বিকানের এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত হয়ে বৃহস্পতিবার বৈকাল পাঁচটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে।

প্রায় চারটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। এক বগির উপর আর এক বগি চেপে গেছে।
প্রচুর মানুষের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
এখনও পর্যন্ত প্রায় ৫০ টির ও বেশি অ্যাম্বুলেন্স পৌঁছেছে ঘটনা স্থলে।

পুলিশ সহ এলাকার বিভিন্ন রেল অধিকারিকরা আরো এলাকার নেতারাও। উদ্ধার কাজ চলছে এখনও পর্যন্ত প্রায় ২৫০ রও বেশি মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৭ জনেরও বেশী লোকের। ইতি মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইট করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ও তাড়াতাড়ি উদ্ধার কাজ করতে বলেছেন এবং আহতদের দ্রুত চিকিৎসা ব্যবস্থার কথা বলেছেন। মমতার কাছেই দুর্ঘটনার খোঁজ নেন প্রধানমন্ত্রীও।

জানা গিয়েছে যে কালকে ঘটনা স্থলে উপস্থিতি হবেন রেলমন্ত্রী।

আর্থিক অনুদানের ও কথা বলা হয়েছে।
মৃতের পরিবারকে পাঁচ লক্ষ্য টাকা ও গুরুতর আহতদের এক লক্ষ্য টাকা ও আহতদের পঁচিশ হাজার টাকা ঘোষণা করা হয়েছে।

দুর্ঘটনার জন্য হেল্প লাইন চালু করেছে রেল কর্তৃপক্ষ ৮১৩৪০৫৪৯৯৯
ইতি মধ্যে ব্লাড ব্যাংকে রক্তের অভাব দেখা গিয়েছে তাই এলাকা বাসীদের রক্ত দান করার আহ্বান করেছে অনেকেই।

তাই যারা রক্ত দিতে চান তাঁরা অতি শীঘ্রই রক্ত দিয়ে আসুন। দরকারে নিচের নাম্বারে ফোন করুন।
8389845286
8250604824
8016209852
9832668658
8617566080
9832581911


..........
0
1 views    0 comment
0 Shares

শিশু-কিশোর উৎসব রঘুনাথগঞ্জ

নিজস্ব সংবাদদাতা

 রাঘুনাথগঞ্জ ব্লকের এস.আই.ওর জয়রামপুর বাঁধ ইউনিটের শিশু কিশোর উৎসব পালিত হলো আজ বুধবারসারাদিন ব্যাপি। আজ সকালে অনুষ্ঠান শুরু হয় পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে।সম্পূর্ণ খেলাটি পরিচালনা করে এস.আই.ওর জয়রামপুর বাঁধ ইউনিট এর সদস্যরা।সুষ্ঠু ভাবে কোভিড প্রটোকল মেনে খেলা হয়। খেলা গুলির মধ্যে অন্যতম হলো উইকেট হিটিং, দৌড় প্রতিযোগিতা, মেমোরি টেস্ট, কিরাত(সূরা ফাতিহা),ও মিউজিক্যাল চেয়ার।পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিজয়ী দের হাতে প্রাইজ তুলে দেয়া হয়।তাতে শিশু কিশোর রা খুব খুশি হয় এবং এইরকম ধারাবাহিক অনুষ্ঠানের আবেদন জানায়।
          উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাঘুনাথগঞ্জ ব্লক এর ব্লক সেক্রেটারি মহঃ জসিম সেখ,ব্লক কিশোর অঙ্গন সেক্রেটারি রাহিবুল সেখ,ব্লক অর্গানাইজেশন সেক্রেটারি ও ইউনিট প্রেসিডেন্ট রোহিত সেখ, ইউনিট সেক্রেটারী সইদুল রহমান,ইউনিট কিশোর অঙ্গন সেক্রেটারি সামিরুল সেখ,কাদিকোলা ইসলামীয়া লাইব্রেরীর সদস্য জসিম সেখ ও অন্যান্য এস.আই ওর কর্মী বৃন্দারা।সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় কিশোর অঙ্গন উৎসব সুস্ঠু ভাবে সম্পূর্ন হয়। অনুষ্ঠান শেষে ইউনিট প্রেসিডেন্ট রোহিত সেখ এক বার্তায় বলেন সমাজে মোবাইল গেমের মতো অন্যান্য বিষাক্ত জিনিসের নেশার আসক্তি থেকে শিশু কিশোরদের বের করে আনতে এইরকম পরিবেশ বান্ধব খেলাধুলার অনুষ্ঠান গুলো খুবই কার্যকরী এবং ফলপ্রসূ।

..........
0
0 views    0 comment
0 Shares

মাদ্রাসা ফোরামের নদিয়া জেলা শাখার উদ্যোগে নবনিযুক্ত প্রধান শিক্ষকদের সংবর্ধনা ও কর্মশালা



নিজস্ব সংবাদদাতা

বহু প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পশ্চিমবঙ্গ মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের সুপারিশে বিভিন্ন জেলায় হাই মাদ্রাসা, জুনিয়র হাই মাদ্রাসা , গার্লস হাই মাদ্রাসা, উচ্চ মাধ্যমিক হাই মাদ্রাসা ও সিনিয়র মাদ্রাসাগুলির পরিচালন কমিটি প্রধান শিক্ষক, প্রধান শিক্ষিকা ও সুপারইনটেনডেন্ট নিয়োগ প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছে ৷ নদীয়া জেলায় এবার চারটি মাদ্রাসায় প্রধান শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে৷করোনা ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের নদীয়া জেলা শাখার উদ্যোগে বেথুয়াডহরীর দেশবন্ধু স্মৃতি পাঠাগারের সংহতি ভবন মঞ্চে নদিয়া জেলার চারটি মাদ্রাসায় নবনিযুক্ত প্রধান শিক্ষকদের সংবর্ধনা দেওয়া হয় এবং নদিয়ার জানকীনগর হাই মাদ্রাসার 
প্রধান শিক্ষক শিক্ষারত্ন পুরস্কার প্রাপ্ত মাননীয় সোহরাব হোসেন ও মুর্শিদাবাদের মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসার নবনিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ইসরারুল হক মন্ডলকেও এই সভা থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয় ৷
এই সভা থেকে প্রধান শিক্ষকদের কর্মপ্রণালী সম্পর্কে সুচিন্তিত ও বিস্তুর আলোচনা হয় ৷ সংবর্ধনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের রাজ্য সভাপতি মাননীয় ইসরারুল হক মন্ডল , রাজ্য সম্পাদক মীর রবিউল ইসলাম, ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ স্থানীয় নেতৃত্বগণ, নদীয়া ও মুর্শিদাবাদ জেলার বিভিন্ন মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকগণ, নদীয়া জেলার বিভিন্ন মাদ্রাসায় নবনিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মহাশয়গণ , মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের একনিষ্ঠ সমর্থক ও সদস্যবৃন্দ ।

আজকের এই মহতী অনুষ্ঠানে জনকীনগর হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক সোহরাব হোসেন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের উক্তিকে স্মরণ করে বলেন প্রধান শিক্ষক মহাশয়দের বাইরেটা হবে বজ্রের মতো কঠিন আর হৃদয় হবে কোমলতায় পরিপূর্ণ ৷বর্তমানে প্রধান শিক্ষকদের বহুবিধ কাজ সম্পাদনা করতে হয় ৷এটি একটি টিম ওয়ার্ক ৷সহকারী শিক্ষকদের নিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষার বিস্তার ও উন্নয়ন এবং সেই সঙ্গে মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রীদের কর্মমুখী করে তুলে যে কোনও প্রতিযোগিতায় এগিয়ে রাখার প্রচেষ্টা আমাদের সকলকেই করতে হবে ৷ বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের নদীয়া জেলা শাখা কমিটিকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে রাজ্য সভাপতি ইসরারুল হক মন্ডল বলেন , আজকে যুব দিবস ৷ প্রত্যেক মানুষের মধ্যেই উন্নততর বিবেক জাগ্রত হোক ৷মাদ্রাসা শিক্ষায় বিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান, সেই সঙ্গে নৈতিকতা ও দেশপ্রেমের পাঠ দেওয়া হয় ৷ আজকের সভা থেকে মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষকদের শিক্ষা বিষয়ে উন্নতি সাধনের সঙ্গে সঙ্গে সামাজিক ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানো হয় ৷

..........
21
3534 views    0 comment
1 Shares

সাধারণ কামরায় ছানা নিয়ে যাতায়াত সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ, সোমবার থেকে নতুন নিয়ম রেলে

 ভেন্ডার কামরার দরজা বন্ধ করা যাবে না, ব্যবসায়ীদের স্পষ্ট নির্দেশ রেলের।

 সুব্রত বিশ্বাস: ট্রেনের  দরজা থেকে আসনের নিচ – সব জায়গাতেই ছানার ঝুড়ি। জলে ভাসছে কামরা। ছানার কড়া গন্ধে যাত্রীদের অবস্থা সঙ্গীন।

 এই যন্ত্রণা ভোগ করতে করতেই ফি-দিন যাওয়াআসা করতে হচ্ছিল শিয়ালদহ-লালগোলা (Sealdah-Lalgola), কৃষ্ণনগর, শান্তিপুর শাখার নিত্যযাত্রীদের। দীর্ঘ ভোগান্তি নিয়ে বারবার অভিযোগ আসছিল রেল (Rail) ও পুলিশের কাছে। সোমবার এই ভোগান্তি থেকে রেহাই পেতে চলেছেন যাত্রীরা। ছানা আর যাত্রীবাহী কামরায়  তুলতে পারবেন না ব্যবসায়ীরা। শুধুমাত্র ভেন্ডারেই (Vendor)যাতায়াত করতে হবে ছানা নিয়ে। ছানা ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য ঠেকাতে শনিবার রেলপুলিস ও ছানা ব্যবসায়ীদের মধ্যে বৈঠক হয়।

 কৃষ্ণনগরে এই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ছানা ট্রেনের ভেন্ডার কামরা ছাড়া অন্য যাত্রীবাহী কামরায় তোলা হবে না। পাশাপাশি ভান্ডার কামরার দরজাও বন্ধ করতে পারবেন না তারা।

 রেল পুলিশের ডিএসপি (গেদে) নরেন্দ্রনাথ দত্ত বলেন, ”ছানা ব্যবসায়ীরা যাত্রীবাহী কামরায় ছানা তোলায় স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াত করতে পারেন না নিত্যযাত্রীরা। ছানার জলে কামরা ভিজে থাকা থেকে শুরু করে, সিটের নিচে, পা-দানিতে ছানার ঝুড়ি রাখা নিয়ে যাত্রীদের সঙ্গে রোজই ঝামেলা বাধে ব্যবসায়ীদের। পাশাপাশি ছানা তুলে ভেন্ডার কামরার দরজা বন্ধ করে দেওয়ায় মাঝ পথ থেকে কেউ সে কামরায় চড়তে পারেন না। এনিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ আসছিল।” শনিবার রেল পুলিশের ডাকে বৈঠকে বসেন নদিয়া- মুর্শিদাবাদ ছানা ব্যবসায়ী সমিতি। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, সাধারণ যাত্রী কামরায় (General Compartment)ছানা তুলবেন না ব্যবসায়ীরা।

 ভেন্ডার কামরার দরজাও বন্ধ করবেন না তারা। লালগোলা-শিয়ালদহ শাখার লোকাল ট্রেনে এই দৌরাত্ম্য এ দিশাহারা যাত্রীরা। এই দুর্ভোগ কাটাতে রেলের বৈঠকে নেওয়া এই সিদ্ধান্ত না মানলে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

 সম্প্রতি মুর্শিদাবাদের বেলডাঙ্গার এক যুবককে ট্রেন থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে ছানা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপরই নড়ে বসে পুলিশ প্রশাসন। সোমবার থেকে সিদ্ধান্ত না মানলে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হবে বলে জানিয়েছে রেল পুলিশ।

 একইভাবে আরপিএফও (RPF) তাদের মতো করে ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছে। শুধু লোকাল নয়, মেল, এক্সপ্রেসেও একইভাবে দৌরাত্ম্য চালায় ব্যবসায়ীরা। শৌচালয়ের দরজার সামনে ছানা, পনিরের বস্তা রাখায় সেখানে ঢোকাই যায় না বলে অভিযোগ।

..........
0
0 views    0 comment
0 Shares

বেলডাঙ্গার ছেলের সমাজ সেবায় ভারত রেকর্ড

সমাজ সেবা কোনো কর্ম নয়, সমাজ সেবা যার নেশা।মুর্শিদাবাদের বেলডাঙ্গার ছেলে শাহাবুদ্দিন সেখ ছোট বেলায় স্কুলের খরচ চালানোর জন্য ক্যাটারার এর কাজ করতো, এবং অনুষ্ঠান বাড়িতে কোন ভিক্ষুক বা কোনো অসহায় ব্যাক্তি আসলে সবাই তাড়িয়ে দেই কিন্তু এই ছেলে অনুষ্ঠানের বেঁচে থাকা খাবার নিয়ে গিয়ে তাদের দিত, এই হল সমাজ সেবার প্রথম ধাপ।
পরবর্তী সময়ে ২০১৭ সাল থেকে বিভিন্ন ভাবে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে গ্রামের ছেলে শাহাবুদ্দিন সেখ ফুটপাথে অসহায়দের খাবার খাওয়ানো, নতুন ও পুরোনো পোষাক দেওয়া, কেউ অসুস্থ হলে হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া। এই রকম বিভিন্ন সময় সমাজের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করেছেন।
পরবর্তীতে দেখলো যে অনেক সমস্যার মধ্যে একটি হল মূমুর্ষূ রোগীকে রক্তদান কোনো কিছুই না ভেবে নিজে রক্তদান ও অন্যকে রক্তদান যেন নেশায় পরিণত হয়ে গেল।  রক্ত দান না করলে যেন তার ঘুম ই আসেনা, তবে বাড়ির সকলেই সাপোর্ট করে।

শাহাবুদ্দিন বলেন বর্তমানে যুবক সমাজ সমাজের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ( বিশেষত- রক্ত দান), তাই আগের তুলনায় কম কাজ করতে হয়।

..........
0
1221 views    0 comment
1 Shares


৫০% উপস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন পরিষেবা চালু থাকলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাঙ্গন কেন খুলে রাখা যাবে না : এসআইও

দীর্ঘদিন লকডাউন কাটিয়ে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পঠনপাঠন শুরু হলেও, রাজ্য সরকার পুনরায় ৩ জানুয়ারি থেকে সমস্ত শিক্ষাঙ্গন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। ছাত্র সংগঠন এসআইও-র পক্ষ থেকে সম্পুর্নভাবে শিক্ষাঙ্গন বন্ধের এই ঘোষণার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হল উমরপুর বাসস্টান্ডে। প্রতিবাদে সামিল হয়ে সংগঠনের উত্তর মুর্শিদাবাদ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি ইত্তেহাদ মাওদূদি বলেন, “করোনা বৃদ্ধির জন্য সমস্ত কিছু চালু রেখে প্রথমেই শিক্ষাঙ্গনে লকডাউন কোনভাবেই মানা যায় না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৫০% উপস্থিতি নিয়ে সিনেমা হল, শপিংমল, পানশালা
সহ অন্যান্য পরিষেবা চালু রাখা যাবে, কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কেন খুলে রাখা যাবে না?"। তিনি আরও বলেন," স্কুল-কলেজের  অনেক শিক্ষার্থী এরই মধ্যে লেখাপড়া ছেড়ে দিয়ে জীবিকার সন্ধানে রত, অনেক মেয়ে শিক্ষার্থীর পরিবার বিয়ে দিয়েছেন, স্কুলের অনেক শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে, সেখান থেকে তাদের হয়তো ফিরিয়ে আনা যাবে না। আমরা জানি না আমাদের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে। "  ইত্তেহাদ মাওদূদি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, " করোনা বাড়লেই বারবার শিক্ষাঙ্গন পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া কোন সমাধান হতে পারে না। জাতির মেরুদন্ড শিক্ষাকে বাচাতে গেলে কোভিড-বিধি মেনে শিক্ষাঙ্গন চালানোর জন্য একটি সর্বজনীন পদক্ষেপ গ্রহণ করার এখনই সময়। অবিলম্বে রাজ্য সরকারের উচিত শিক্ষাঙ্গন চালানোর জন্য বিকল্প কোন গঠনমূলক ও কার্যকারী পন্থা ঘোষণা করা।"

সংগঠনের দাবি সমূহঃ
১) কোভিড-১৯ এর সতর্কতা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পঠনপাঠন জারি রাখতে হবে। 
বিদ্যালয় চালানোর পরামর্শ:¬
ক) শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার্থীরা সকাল ৯ টা বা সকাল ১০ টা থেকে শুরু করে সর্বাধিক তিন ঘন্টা ক্লাসে অংশ গ্রহণ করবে। প্রয়োজনে, অন্য একটি ব্যাচ  দুপুর ১টা থেকে অথবা ২টা থেকে শুরু করে তিন ঘন্টার জন্য উপস্থিত থাকতে পারে ( ক্লাসের সময় প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের দ্বারা নির্ধারিত হবে)।
খ) মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে যেখানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩০০ সেখানে একসাথে ৫০% শিক্ষার্থী উপস্থিত থাকতে পারে। যে সমস্ত বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩০০র অধিক সেখানে ২৫% শিক্ষার্থী একসাথে ক্লাসে যোগ দিতে পারে।
গ) শ্রেণিকক্ষে প্রতিটি বেঞ্চে একজন করে শিক্ষার্থী বসবে। শিক্ষার্থীদের একে অপরের থেকে দুই মিটার দৈহিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
ঘ) শিক্ষার্থী, শিক্ষক এবং অন্যান্য স্কুল কর্মী যারা কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছে বা কোভিড-১৯ আক্রান্তের সম্ভবনা রয়েছে অথবা কোয়ারান্টাইনে রয়েছে তাদের স্বাস্থ্য বিভাগের দ্বারা নির্ধারিত দিনের সংখ্যা অতিক্রম করেই কেবল স্কুলে আসতে পারবে।
ঙ) যে সমস্ত পড়ুয়াদের পরিবার কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছে তাদের বিদ্যালয় আসা থেকে বিরত রাখতে হবে।
চ) স্কুল প্রাঙ্গণ, আসবাব, স্টেশনারি, স্টাফ রুম, জলের ট্যাঙ্ক, রান্নাঘর, ক্যান্টিন, পরীক্ষাগার, গ্রন্থাগার, এবং শৌচাগারকে নিয়মিত জীবাণুমুক্ত করতে হবে।
ছ) রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে যেহেতু জলবাহিত রোগের সংক্রমণের ঘটনাও ঘটেছে তাই বিদ্যালয়ের জলের উৎস যেমন ট্যাঙ্ক এবং নলকূপ কে জীবাণুমুক্ত করতে হবে।
জ) প্রতিটি বিদ্যালয়ে ডিজিটাল থার্মোমিটার, মাক্স, স্যানিটাইজার এবং সাবানের পর্যাপ্ত পরিমাণ ব্যবস্থা ও সংরক্ষণ রাখতে হবে।
ঝ) বিদ্যালয়ের স্টাফ রুমেও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। যে জায়গাগুলিতে পানীয় জল পাওয়া যায়, হাত ধোয়া হয় সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গোল মার্ক কাটতে হবে যাতে করে কোভিড-১৯ এর নিয়মাবলী কঠোরভাবে অনুসরণ করা যায়।

২) স্কুলছুট সামাজিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে একটি অন্তরায়। এই স্কুলছুট কোভিড-১৯ ও লকডাউনের কারণে মারত্মক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই বৃদ্ধির হার রোধ করতে সরকারের উচিত আকর্ষণীয় এবং গঠনমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা। স্কুলছুটদের পুনরায় ফিরিয়ে নিয়ে আসতে শিক্ষকদের মাধ্যমে প্রতিটি বাড়িতে পৌঁছাতে হবে।

৩) ১৫ বছরের ঊর্ধ্বে সমস্ত পড়ুয়াকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে হবে। ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন ও পুরো পদ্ধতি সরলীকরণ করতে হবে। ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্যাম্পের আয়োজন করা যেতে পারে।

ধন্যবাদান্তে,
আনোয়ার হোসেন
সেক্রেটারি, এসআইও উত্তর মুর্শিদাবাদ
যোগাযোগ নং: 8145316318

..........
0
0 views    0 comment
0 Shares

পিএইচডি ভর্তিতে ওবিসি-এ পড়ুয়াদের বঞ্চনার প্রতিবাদে কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান ও মানববন্ধন করলো এসআইও নদীয়া জেলা ।

এসআইও নদীয়া জেলা সভাপতি সফিকুল ইসলাম মন্ডলের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল সোমবার  কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির জন্য পঁচিশ  জনের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। এই তালিকায় জেনারেল ছাড়াও অন্যান্য পিছিয়ে পড়া গোষ্ঠীর পড়ুয়া রয়েছে, কিন্তু ওবিসি-এ  শ্রেণীভূক্ত একজন পড়ুয়াকেও তালিকাভুক্ত করা হয়নি।  এই রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সংখ্যালঘুদের জন্য বরাদ্দকৃত দশ শতাংশ  সংরক্ষণের নিয়ম অনুযায়ী পঁচিশ জনের তালিকায় তিন জন ওবিসি -এ প্রার্থী সুযোগ পাওয়ার কথা, কিন্তু পর্যাপ্ত প্রার্থী থাকা সত্ত্বেও সেই নিয়ম মানা হয়নি। এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে স্মারকলিপি প্রদান করা হয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশদ্বারে এসআইও'র পক্ষ থেকে মানব বন্ধন করা হয়। স্বারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন জেলা সভাপতি সফিকুল ইসলাম মন্ডল, জেলা সম্পাদক ও কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র  জসিমউদদীন সেখ, এসআইও সদস্য এবং কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র  আমিরচাঁদ খান, সদস্য সাহিন মন্ডল প্রমুখ।


..........
1
0 views    0 comment
1 Shares

सरकारी कर्मचारी ना मिलने पर युवती ने फांसी लगाकर की आत्महत्या

मुर्शिदाबाद जिले के कंदी अनुमंडल के खारग्राम थाना अंतर्गत मरग्राम ग्राम पंचायत के गुरुतिया गांव की 26 वर्षीय शिल्पी घोष ने पिछले गुरुवार को फांसी लगाकर आत्महत्या कर ली.  पड़ोसियों और पारिवारिक सूत्रों ने बताया कि लंबे समय से सरकारी कर्मचारी या नौकरी करने वाला कोई लड़का  की तलाश में था और सरकारी कर्मचारी पात्र नहीं मिल रहा था, इसलिए शिल्पी घोष ने आखिरकार फांसी लगाकर आत्महत्या का रास्ता चुना.  शिल्पी घोष के परिवार वालों ने कहा कि वे लंबे समय से  शादी के लिए सरकारी कर्मचारी की तलाश कर रहे थे लेकिन उन्हें कोई सरकारी कर्मचारी नहीं मिला।
हालांकि वे सभी सरकारी कर्मचारी नहीं हैं जिसके लिए शिल्पी घोष ने लंबे समय तक शादी के प्रस्तावों को बार-बार खारिज कर दिया था, इसलिए शिल्पी ने गुरुवार को अवसाद के कारण अपने ही घर में फांसी लगा ली।
बाद में जब घरवालों ने शिल्पी घोष को फांसी पर लटका देखा तो वे उसे लेकर स्थानीय अस्पताल पहुंचे और स्थानीय अस्पताल ले जाने के बाद स्थानीय अस्पताल में ड्यूटी पर मौजूद डॉक्टरों ने शिल्पी घोष को मृत घोषित कर दिया.  शिल्पी घोष की मौत की पुष्टि के बाद खारग्राम थाने की पुलिस ने शिल्पी घोष का शव बरामद कर पोस्टमार्टम के लिए कंदी अनुमंडल अस्पताल मुर्दाघर भेज दिया.  शिल्पी घोष के शव का पोस्टमार्टम गुरुवार को कंदी अनुमंडलीय अस्पताल के मुर्दाघर में किया गया।  परिवार की इकलौती बेटी शिल्पी घोष के निधन पर शोक का साया।  खरग्राम पुलिस ने घटना की जांच शुरू कर दी है।


..........
0
0 views    0 comment
0 Shares

সরকারি চাকরিজীবী পাত্র না পাওয়ার অবসাদে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী এক যুবতী 

মুর্শিদাবাদ জেলার কান্দি মহকুমার খড়গ্রাম থানার অন্তর্গত মাড়গ্রাম গ্রামপঞ্চায়েতের গুরুটিয়া গ্রামের বছর 26 এর শিল্পী ঘোষ নামের এক যুবতী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করলেন গত বৃহস্পতিবার। প্রতিবেশী ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে সরকারি চাকরিজীবী পাত্র খুঁজছিল শিল্পীর বিয়ের জন্য আর সরকারী চাকরিজীবি  পাত্র না মেলায় অবশেষে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন শিল্পী ঘোষ। শিল্পী ঘোষের পরিবারের সদস্যরা জানান,দীর্ঘদিন ধরে সরকারি চাকরিজিবি পাত্র খোঁজা হচ্ছিল শিল্পীর বিয়ের জন্য কিন্তু সরকারি চাকরিজিবি পাত্র খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না এমতাবস্থায় অনেকবার অনেক পাত্রপক্ষ আসে তাদের পরিবারে তাদের মেয়ের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার জন্য আবেদন নিয়ে।
যদিও সে সব পাত্র সরকারি চাকরিজীবী নয় যার জন্য শিল্পী ঘোষ বারবার ওই বিয়ের প্রস্তাব গুলিকে বাতিল করেছিল দীর্ঘদিন ধরে, সরকারি চাকরিজীবী পাত্র না মেলায় বৃহস্পতিবার নিজের বাড়িতেই অবসাদের জেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়ে শিল্পী।
পরবর্তীকালে পরিবারের সদস্যরা শিল্পী ঘোষকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেলে তড়িঘড়ি তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায় আর স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে স্থানীয় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা শিল্পী ঘোষকে মৃত বলে ঘোষণা করে। শিল্পী ঘোষের মৃত্যু নিশ্চিত হবার পর খড়গ্রাম থানার পুলিশ শিল্পী ঘোষের মৃতদেহ উদ্ধার করে কান্দি মহকুমা হাসপাতাল মর্গে পাঠায় ময়নাতদন্তের জন্য। বৃহস্পতিবার শিল্পী ঘোষের মৃতদেহ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে কান্দি মহকুমা হাসপাতাল মর্গে। পরিবারের একমাত্র কন্যা শিল্পী ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় শোকের ছায়া শিল্পী ঘোষের আত্মীয় স্বজন থেকে শুরু করে পাড়া প্রতিবেশী সকলেই। খড়গ্রাম থানার পুলিশ সামগ্রিক ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

..........
0
0 views    0 comment
0 Shares

৩৯ বছর পর প্রধান শিক্ষক নিয়োগ মাড়গ্রাম হাই মাদ্রাসায়

বিশেষ সংবাদদাতা, মাড়গ্রাম

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে সরকার পোষিত হাই মাদ্রাসা, উচ্চ মাধ্যমিক মাদ্রাসা এবং সিনিয়র মাদ্রাসা গুলোতে প্রধান শিক্ষক ও সুপারইনটেনডেন্ট নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে ! ইতিমধ্যে বেশ কিছু মাদ্রাসার পরিচালন সমিতি মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের সুপারিশ মেনে প্রধান শিক্ষক ও সুপারইনটেনডেন্টদের নিয়োগের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছেন ৷ আজ দীর্ঘ ৩৯ বছর পর মাড়গ্রাম হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ করা হয় জনাব মনিরুল ইসলামকে ! মনিরুল ইসলাম আই.সি.আর হাই মাদ্রাসা(উ.মা.) এবং পূর্বে সারফিয়া হাই মাদ্রাসা (উ. মা.)র ইংরেজি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন !

মাড়গ্রাম হাই মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬৯ সালে ৷এই মাদ্রাসার প্রথম প্রধান শিক্ষক ছিলেন শামসুদ্দিন মন্ডল সাহেব ৷তিনি কর্মরত অবস্থায় ১৯৮২ সালে পরলোকগমন করেন ৷ তারপর থেকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দ্বারাই মাড়গ্রাম হাই মাদ্রাসার সমস্ত কাজ সম্পন্ন হয়েছে ৷ সর্বশেষ ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসিফ হোসেন মহাশয় বিভিন্ন সময়ে মুর্শিদাবাদের ডি.আই অফিস এবং মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের কলকাতা অফিসে ছুটাছুটি করে প্রধান শিক্ষকের পি.পি.ও তৈরি করেন ৷ তার ফলে দীর্ঘ ৩৯ বছর পর আজ মাড়গ্রাম হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক পেল৷মাড়গ্রাম হাই মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসিফ হোসেন মহাশয় আজ প্রধান শিক্ষক পদে জনাব মনিরুল ইসলামকে বরণ করে নেন এবং নবাগত প্রধান শিক্ষক মহাশয়কে দায়িত্বভার তুলে দিয়ে বলেন মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়ন ও শিক্ষার্থীদের সর্বাঙ্গীণ বিকাশ সাধনে প্রধান শিক্ষক মহাশয়কে সবরকম সহযোগিতা করব ৷বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের পদের দায়িত্ব নেওয়াও বেশ কঠিন কাজ!প্রধান শিক্ষক মহাশয়কে শিক্ষা বিস্তারের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের সর্বাঙ্গীণ বিকাশ সাধনে বিভিন্ন রকমের প্রকল্প  সবুজ সাথী ,কন্যাশ্রী,বিভিন্ন প্রকার স্কলার্শিপ সহ সব রকমের দায়িত্ব পালনে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হয় !সেই সঙ্গে প্রধান শিক্ষক মহাশয়কে ভীষণভাবে সতর্ক থাকতে হয় , যাতে করে একজন শিক্ষার্থীও যেন বিভিন্ন প্রকার সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত না হয় !তাই সবদিক থেকে বরাবরই একটি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রধান শিক্ষকের পদটি বেশ দায়িত্বপূর্ণ !মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক পদের দায়িত্ব নেওয়ার পর জনাব মনিরুল ইসলাম জানান মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষাকর্মী, পরিচালন সমিতি ও এলাকাবাসীর সহযোগিতায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে সুশিক্ষার আলো পৌঁছে দেওয়া এবং মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়ন করাই আমার প্রধান লক্ষ্য ৷

..........
0
0 views    0 comment
0 Shares

বিশ্বের সেরা মেলা গুলির মধ্যে গঙ্গা সাগর মেলার প্রস্তুতি তুঙ্গে

 

বিশ্বের সেরা মেলাগুলির মধ্যে গঙ্গাসাগর মেলা অন্যতম। এই মেলা আমাদের গর্ব। প্রতি বছর এইসময় গঙ্গাসাগরে লক্ষাধিক পুণ্যার্থীদের সমাগম হয়। এবারও মেলার আয়োজন হবে কোভিডবিধি মেনেই। মেলায় আগত সকলের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। সিসিটিভি ক্যামেরা ও ড্রোনের মাধ্যমে নজরদারি চালানো হবে। ভিড় সামলানোর জন্য ৫১ কিলোমিটার ব্যারিকেড তৈরি করা হবে। গড়ে তোলা হবে অস্থায়ী ফায়ার স্টেশন। এছাড়াও ৬০০ শয্যা বিশিষ্ট কোভিড হাসপাতাল, কোয়ারেন্টিন সেন্টার ও সেফ হোম তৈরি করা হবে। আসন্ন গঙ্গাসাগর মেলায় থাকছে অভিনবত্বের ছোঁয়া, এবারের মেলা হয়ে উঠতে চলেছে বিশ্বজনীন। ই-প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনও প্রান্ত থেকে মেলা চাক্ষুষ করা যাবে, অনলাইনে আবেদন করলেও মিলবে গঙ্গাসাগরের পবিত্র জল ও প্রসাদ। দুর্ঘটনা রুখতে নিয়োগ করা হবে ভলান্টিয়ার, মেলায় আসা তীর্থযাত্রীদের জন্য বিশেষ বিমার ব্যবস্থা করা হবে। এবারের মেলা হয়ে উঠবে ইকো ফ্রেন্ডলি ও প্লাস্টিক মুক্ত। আজ নবান্ন সভাঘরে গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি সংক্রান্ত পর্যালোচনা বৈঠক অনুষ্ঠিত হল। বৈঠকের কয়েকটি মুহূর্ত।

..........
7
131 views    0 comment
0 Shares

করোনা মহামারীতে আপনি কাজ হারিয়ে হতাশার ছত্রছায়ায় জীবন যাপন করছেন? কাজ নেই তাই বেশ কিছুটা ফাঁকা সময়টাই মোবাইল নিয়ে নেট দুনিয়ায় হাবুডুবু খাচ্ছেন?অবসর সময় কাটাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ডুব। নেটদুনিয়ায় গড়ে উঠেছে বন্ধুত্ব। হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জারে কথাবার্তার মাধ্যমে মাত্র কয়েকদিনেই নিগূঢ় সম্পর্কে ঘনিষ্ঠতা পাচ্ছে। কোনও ভাবনা চিন্তা না করেই কি সোশ্যাল মিডিয়ার বন্ধুর সঙ্গে সব কিছু শেয়ার করছেন?
বন্ধুত্বের আড়ালে বিপদ ঘাঁপটি মেরে বসে নেই তো, সাবধান হোন।
অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বন্ধুত্ব গড়ে তুলছে। কয়েকদিন কথাবার্তার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পাঠানো শুরু হয়। অন্তরঙ্গ ছবি হাতে পাওয়ার পরই সম্পর্কে অবনতি হয়। ওই ছবিই তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করার হুমকি দেয়। টাকা না দিলে সমস্যা আরও বাড়বে বলেই দাবি করা হয়।সম্মান হানীর আশঙ্কায় টাকা দিতে কার্যত বাধ্য হতে হয় অনেককেই। এমনকী আত্মহত্যার ঘটনাও নতুন নয়। এই সমস্যা থেকে বাঁচতে আগাম সতর্ক করলেন রাজ্য পুলিশ পরিচালকমণ্ডলীর ডেপুটি পুলিশ সুপার বিদিত মণ্ডল।
আজ তিনি ভিডিও বার্তায় জানান, সমস্যা থেকে রেহাই পেতে কিছুতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি পাঠাবেন না। ঘনিষ্ঠতার আগে ভালো করে খতিয়ে দেখুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার বন্ধু প্রতারক কিনা।
এই ধরনের অপরাধ 'সেক্সটরশন' নামে পরিচিত। সতর্কতার পরেও কেউ 'প্রতারক' বন্ধুর খপ্পরে পড়লে অবশ্যই পুলিশে অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দেন তিনি। সেক্ষেত্রে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে এগিয়ে আসবেন ঊর্দিধারীরা।

..........
2
128 views    0 comment
0 Shares

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন-২০১৯ পাশের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে অমীমাংসিত নাগরিকত্বের সমাধান খুঁজতে এবং NPR, NRC, CAA বাতিলের দাবীতে কোলকাতা পার্ক সার্কাস টি.বি.অ্যাসোসিয়েশন হলে ওয়েলফেয়ার পার্টির সেমিনার।
       এদিনের সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন ওয়েলফেয়ার পার্টির সর্ব ভারতীয় সভাপতি ডঃএস.কিউ.আর. ইলিয়াস,কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডাঃ রইসুদ্দিন,রাজ্য সভাপতি শ্রী মনসা সেন,রাজ্য সহ-সভাপতিদ্বয় মির্জা নুরুল হাসান ও আব্দুল নঈম,রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সারওয়ার হাসান,FITU কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডাঃমানোয়ারা বেগম,রাজ্য সভাপতি সেখ মোজাফফর,ফ্র্যাটারনিটি মুভমেন্ট এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মোল্লা,No NRC Movment এর কনভেনর কমল শুর,RSP সেন্ট্রাল কমিটির মেম্বার মৃন্ময় চ্যাটার্জি,ফরওয়ার্ড ব্লকের কোলকাতা জেলার সদস্য প্রদ্দুত নাথ,ওয়েলফেয়ার পার্টির রাজ্য ট্রেজারার মামুন আকতার হোসেন,রাজ্য সম্পাদকদ্বয় জালাল উদ্দীন আহমেদ,শাহাজাদী পারভীন,আবু তাহের আনসারী,FITU রাজ্য সম্পাদক মাহিনুর জামান,ফ্র্যাটারনিটি মুভমেন্ট এর রাজ্য সম্পাদক নয়িম সেখ প্রমুখ ব্যক্তিত্ব।

..........
0
354 views    0 comment
0 Shares

অসহায় শীতার্তদের পাশে তরঙ্গ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট  

মোসাররাফ হোসেন, সাগরদিঘী

সাগরদিঘির বিভিন্ন এলাকার কিছু দুস্থ অসহায় মানুষের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেওয়া হয়। আজ ২৬শে ডিসেম্বর'২১ কাবিলপুর হাইস্কুলে বেলা ১২টার সময় এই বস্ত্র বিতরণ কর্মসূচিটি অনুষ্ঠিত হয়৷ অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেন ট্রাস্টের কর্ণধার জনাব ইফতিকার আলম মহাশয় ৷ দরিদ্র অসহায় মানুষ রেললাইনের ধারে কিংবা বস্তি বা কলোনীবাসী সকলেই শীতের প্রকোপে জুবুথুবু ৷বিশেষত ছিন্নমূল খেটে খাওয়া মানুষের জনজীবন করোনা মহামারী ও ওমিক্রনের থাবায় আজ বিপর্যস্ত !কিন্তু মানুষ মাত্রই অন্ন বস্ত্র বাসস্থান ও সুচিকিৎসা পাওয়ার অধিকার রয়েছে !তাই মানুষ হিসেবে মানুষের পাশে দাঁড়াতে কাবিলপুরবাসীর সহযোগিতায় সদ্য গড়ে ওঠা তরঙ্গ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের সকল সদস্যদের উদ্যোগে আজকের এই ব্ল্যাঙ্কেট বিতরণ কর্মসূচি ৷আজকের এই মহতী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাগরদিঘী থানার অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সেপেক্টর রফিকুল ইসলাম সাহেব ,কাবিলপুর উচ্চতর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মজিবুর রহমান, সহশিক্ষক মুর্শিদ সারোয়ার জাহান, কাবিলপুর ডি. কিউ. সিনিয়র মাদ্রাসার প্রাক্তন শিক্ষাকর্মী জনাব মহঃ ইলতুৎমিস , পার্শ্ব শিক্ষক মহঃ আমিরুল ইসলাম, কবি লক্ষণ দাস মহাশয়, মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের অন্যতম সদস্য তথা আই.সি.আর হাই মাদ্রাসা(উ.মা.)র সহকারী শিক্ষক মহঃ মোসাররাফ হোসেন,এছাড়াও বিশিষ্ট ব‍্যক্তিবর্গ ও গুণিজন উপস্থিত ছিলেন ৷ এই সকল ব্যক্তিদের উপস্থিতি ও সহযোগিতা সমাজসেবার কাজে সক্রিয় থাকতে এবং সুন্দর সমাজের সন্ধানে তরঙ্গ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের সদস্যদের উৎসাহিত ও অনুপ্রাণিত করে ৷ট্রাস্টের উদ্যোগে শীতকালীন অসহায় ও দুস্থ পরিবারগুলোর শীত নিবারনের  কথা মাথায় রেখে প্রায় তিন শতাধিক পরিবারের হাতে ব্ল্যাঙ্কেট তুলে দেওয়া হয় ৷মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব৷ তাই মানুষ হিসেবে মানুষেরই সামাজিক দায়বদ্ধতা আছে। সামাজিক জীব হিসেবে এই কঠিন সময়ে ওই সমস্ত দুস্থ ও অসহায় পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়ানো দরকার ৷ এই মহতী কর্মযজ্ঞে সকলের উজ্জ্বল উপস্থিতি ও আন্তরিক সহযোগিতাএকান্তভাবে কামনা করে তরঙ্গ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের কর্ণধার জনাব ইফতিকার আলম মহাশয় বলেন 'বন্ধুদের সাথে, মানুষের পাশে ,সুন্দর সমাজের সন্ধানে আমরা এগিয়ে চলেছি আলোর পথে ! তাই আজকে এই অসহায় শীতার্ত মানুষের পাশে  দাঁড়াতে ট্রাস্টের পক্ষ থেকে কম্বল বিতরণ কর্মসূচি ৷ যারা আমাদের ট্রাস্ট পরিবারকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, তাঁদেরকে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি ৷আশা করি পরবর্তী সময়েও তাঁরা আমাদের পাশে থাকবেন !'ট্রাস্টের অন্যতম সদস্য আনিসুর রহমান বলেন 'তরঙ্গ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের 
 বয়স মাত্র ৯১ দিন ,সদ্য গড়ে ওঠা ট্রাস্ট ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি কাজের স্বাক্ষর রেখেছে ! আমাদের পরবর্তীতে সাগরদিঘী এলাকার বাইরে গিয়েও কাজ করার পরিকল্পনা আছে !মানুষ সহযোগিতা করলে আমরাও অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবো, সুন্দর সমাজের সন্ধানে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার্থে,অসহায় মানুষের পাশে থাকতে !'এই মহতী অনুষ্ঠানটি সুচারুরূপে সঞ্চালনা করেন মুর্শিদের সারোয়ার জাহান ও শাহিন হোসেন মহাশয়!

..........
5
286 views    0 comment
0 Shares

জঙ্গিপুর মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক পদে ইসরারুল হক মন্ডল

মোসাররাফ হোসেন, জঙ্গিপুর

একশ ষোলো বছরের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী জঙ্গিপুর মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক পদে অভিষিক্ত হলেন  ইসরারুল হক মন্ডল ৷ তিনি এত দিন ভগবানগোলার  সারফিয়া হাই মাদ্রাসায় জীবন বিজ্ঞানের সহকারি শিক্ষক ছিলেন, সেই সঙ্গে তিনি বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরাম এর রাজ্য সভাপতি ৷ এবার ইসরারুল সাহেব জঙ্গিপুর মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব ভার গ্রহণ করলেন ৷

মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসা সর্বশেষ প্রধান শিক্ষক ছিলেন আনিসুর রহমান সাহেব ৷ তিনি ২০১৫ সালের ২৮শে ফেব্রুয়ারি অবসর গ্রহণ করেন !এরপর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন অত্র মাদ্রাসার ইংরেজি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক শাজাহান সাহেব ৷

দীর্ঘ সাত বছর পর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাজাহান সাহেব প্রধান শিক্ষক পদে ইসরাইল হক মন্ডলকে আজ বরণ করে নিয়ে দায়িত্বভার অর্পণ করেন ৷
প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসা প্রধান শিক্ষক হিসাবে ইসরারুল হক মন্ডলকে পেয়ে অত্র মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষিকাগণ ,শিক্ষার্থী বৃন্দ ও এলাকাবাসী খুশি ৷

..........
17
1659 views    0 comment
45 Shares

আরও ৫ বছর ফিরহাদ হাকিম থাকছেন কলকাতার মেয়র - দায়িত্বে মালা ও অতীন

সকাল থেকেই ছবিটা কার্যত স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। তাতে কোনও চমক দিলেন না তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফিরহাদ হাকিমকেই কলকাতা পুরনিগমে দলনেতা হিসেবে নির্বাচিত করল তৃণমূল। অর্থাৎ আগামী পাঁচ বছর কলকাতার মেয়র থাকতে চলেছেন তিনি। চেয়ারপার্সন হচ্ছেন মালা রায়। ডেপুটি মেয়র পদে বসতে চলেছেন অতীন ঘোষ।

বৃহস্পতিবার মহারাষ্ট্র ভবনে কলকাতার মেয়র হিসেবে ফিরহাদের নাম প্রস্তাব করেন রাজ্য তৃণমূলের সভাপতি সুব্রত বক্সি। তাতে সায় দেন কাউন্সিলররা। সর্বসম্মতভাবেই কলকাতা পুরনিগমে তৃণমূলের দলনেতা নির্বাচিত হন ফিরহাদ। অর্থাৎ তিনিই হতে চলেছেন কলকাতার নয়া মেয়র। তবে নিয়ম মোতাবেক, এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে ফিরহাদ মেয়র হননি। পরবর্তীতে পুরনিগমের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। তারপরই সরকারিভাবে কলকাতার মেয়র হবেন তিনি।

..........
1
131 views    0 comment
0 Shares